প্রেমিককে মারধর, বার বার বিতর্কে কঙ্গনা

প্রকাশিত: ১০:০৪ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২, ২০২০

প্রেমিককে মারধর, বার বার বিতর্কে কঙ্গনা

বিনোদন ডেস্ক :-কঙ্গনা রানাউত বলিউডের অন্যতম শক্তিশালী এই অভিনেত্রীর সরাসরি কোনও বলিউড যোগ ছিল না। মানালির এই ভূমিকন্যা বার বার জড়িয়েছেন বিতর্কে। কখনও অনুরাগ কাশ্যপ, কখনও কর্ণ জোহর, কখনও আদিত্য পাঞ্চোলির বিরুদ্ধে শারীরিক হেনস্থা, আবার কখনও সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যু ঘিরে বিতর্কিত মন্তব্য। বলিউডের ‘কুইন’কে ‘কন্ট্রোভার্সি কুইন’ বললে খুব একটা ভুল হবে না।

ছোটবেলায় ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন নায়িকা দ্বাদশ শ্রেণিতে রসায়নে ফেল করার পর কঙ্গনার মনে হয় পড়াশোনা তাঁর জন্য নয়। স্কুল ছেড়ে মডেলিং শুরু করেন। মডেলিংয়ে সাফল্য আসার পর অভিনয় শুরুর কথা ভাবেন। ২০০৬ সালে ক্রাইম থ্রিলার ‘গ্যাংস্টার’ ছবিতে সাফল্যের পর অভিনয়কেই পেশা হিসেবে বেছে নেন কঙ্গনা। সাহসী মন্তব্যের জন্য বি-টাউনে বরাবরই পরিচিত মুখ কঙ্গনা রানাউত। যৌনতা নিয়ে কোনও দিনই বিশেষ ছুঁৎমার্গ নেই তাঁর। ব্যক্তিগত সম্পর্কের ব্যাপারেও কোনওদিন লুকোছাপা করতে দেখা যায়নি তাঁকে। হৃতিক রোশন কিংবা আদিত্য পাঞ্চোলী— বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন পুরুষের সঙ্গে নিজের নাম জড়ালেও ‘ইমেজ’ হারানোর ভয়টা ঠিক ধাতে নেই অভিনেত্রীর।

একা কাঁধে বক্স অফিসে ছবি চালানোর ক্ষমতা রাখেন কুইন। আজ অবধি কোনও খানের বিপরীতে কাজ করতে দেখা যায়নি তাঁকে। কঙ্গনা অবশ্য দাবি করেন, খানেদের বিপরীতে কাজের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন তিনি।

সালমান খানের ‘সুলতান’-এ চরিত্রের ওজন না থাকায় সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন বলে দাবি করেন কঙ্গনা। আবার কখনও বলেছেন, শাহরুখ ও তাকে নিয়ে ছবি বানাতে চান সঞ্জয় লীলা ভন্সালী। কিন্তু তিনি মত দেননি।

আমির খানকে তিনি পছন্দ করেন বলেই এত দিন জানত ইন্ডাস্ট্রি। তবে ‘মণিকর্ণিকা’ বিতর্কের সময়ে কঙ্গনাকে সমর্থন করেননি আমির। তাই তার নামও কাটা পড়েছে কুইনের তালিকা থেকে।

‘জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া’-র প্রচারে গিয়ে এক সাংবাদিককে তীব্র আক্রমণ করেছিলেন তিনি। কারণ তিনি ‘মণিকর্ণিকা’র নেতিবাচক রিভিউ দিয়েছিলেন। কঙ্গনার আচরণে সাংবাদিকদের একাংশ তাঁকে বয়কট করেন। প্রেস কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়াও সমর্থন করে বিষয়টিকে।

বলিউডে পা রাখার সময় নাকি কঙ্গনার ঠাঁই হয়েছিল তাঁর থেকে বয়সে অনেক বড় আদিত্য পাঞ্চোলির বাড়িতে। বলিউডে গুঞ্জন ওঠে, বিবাহিত আদিত্যের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের।

পাঁচ বছর পর এই সম্পর্কে ইতি পড়লে কঙ্গনা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন আদিত্যের বিরুদ্ধে। দাবি করেন, তাঁকে মারধর করেছেন পাঞ্চোলি। ১৭ বছর বয়সে নাকি তাঁর মাথায় আঘাত করা হয়েছিল, এমনই অভিযোগ করেন কঙ্গনা।

কঙ্গনার বিরুদ্ধে ‘কালা জাদু’ করার অভিযোগ এসেছিল ‘রাজ দ্য মিস্ট্রি কনটিনিউজ’ তারকা অধ্যয়ন সুমনের তরফে। শেখর সুমনের পুত্র ও তাঁর পরিবারকে নাকি কঙ্গনা শারীরিক অত্যাচারও করেছিলেন। সেই বিতর্কেও নিজের মতো করে উত্তর দিয়েছিলেন কঙ্গনা।

অজয় দেবগণের সঙ্গেও নাকি ডেট করেছেন কঙ্গনা। সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল দু’জনের, বলিউডে এমন গুঞ্জনও ছিল। ‘ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন মুম্বই’ ছবির সময় এই কথা রটে যায়। কাজলের সঙ্গে নাকি মনোমালিন্যও শুরু হয়েছিল অজয়ের। তখনই সম্পর্ক মেরামতে জোর দেন অজয়। কঙ্গনার সঙ্গে ছবি করতে চাননি পরবর্তীতে। পরে কঙ্গনাও বলেছিলেন, কোনও বিবাহিত পুরুষের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানো ঠিক নয়।

২০১৪ সালে সবচেয়ে জনপ্রিয় অভিনেত্রীর পুরস্কার পান দীপিকা পাড়ুকোন। ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’-এর জন্য জেতা ওই সম্মান তিনি উত্সর্গ করেছিলেন কঙ্গনাকে। কঙ্গনা যদিও বলেছিলেন, আমার কাজ ওর কেমন লাগে মুখোমুখি বলতে হবে। এ দিকে ‘তনু ওয়েডস মনু রিটার্নস’ ছবিতে স্পেশাল স্ক্রিনিংয়ে দীপিকা উপস্থিত থাকতে পারেননি। কঙ্গনা বলেছিলেন, তিনি আঘাত পেয়েছেন দীপিকার আচরণে।

কর্ণ জোহরের টক শোয়ে গিয়ে সরাসরি কর্ণকেই আক্রমণ করে কঙ্গনা বলেন, বলিউডে স্বজনপোষণের মুখ কর্ণ। প্রতিভার বদলে তিনি নাকি স্টারকিডদেরই অভিনয়ের সুযোগ দেন। এর পর চুপ থাকেননি কর্ণও। তিনিও কঙ্গনাকে বরাবর ‘আক্রান্ত’, ‘নিপীড়িত’-এর অভিনয় থেকে দূরে থাকতে বলেন।

‘গাল্লি বয়’-এর প্রচারে রাজনীতি সম্পর্কে আলিয়া ভট্ট ও রণবীর সিংহ কিছু বলতে না চাইলে কঙ্গনা তাঁদেরও জবাব দিতে ছাড়েননি। আলিয়ার প্রেমিক রণবীর কপূরকেও আক্রমণ করে তিনি বলেন, “এঁরা সবাই দায়িত্বহীন। বাড়িতে জল আর বিদ্যুত্ আসছে বলে রাজনীতি সম্পর্কে কোনও আগ্রহ থাকবে না!”

হৃতিক রোশনের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল। এক সঙ্গে প্যারিসে নাকি সময় কাটিয়েছিলেন, হাজারের উপর মেল চালাচালি হয়েছিল নাকি। কঙ্গনার লাগাতার অভিযোগের পর শেষ পর্যন্ত ফেসবুকে একটি আত্মপক্ষ সমর্থনকারী পোস্ট লিখেছিলেন হৃতিক। এরপরই ফের পাল্টা তোপ দেগেছিলেন কঙ্গনার দিদি রঙ্গোলি চান্দেল। হৃতিকের ফেসবুক পোস্টের দাবিকে উড়িয়ে টুইটারে সে দিনই তিনি হৃতিক-কঙ্গনার কিছু ঘনিষ্ঠ ছবি পোস্ট করেন।

আইনি জটিলতা, নোটিস পাল্টা নোটিসে মুখ দেখাদেখি পর্যন্ত বন্ধ এই দুই অভিনেতার। হৃতিকের আইনজীবী বলেন, ছ’মাস ধরে কঙ্গনা হাজার হাজার মেল পাঠিয়েছেন হৃতিককে। পুলিশের কাছে জমা ইমেলগুলো থেকে দেখা যাচ্ছে, কোনও কোনও দিন ছ’মিনিট অন্তর হৃতিককে মেল করেছেন তিনি। একটি মেলে নিজের নগ্ন ছবি পাঠিয়ে হৃতিকের উদ্দেশে কঙ্গনা নাকি লিখেছেন, ‘আমরা যখন প্রথম বার একসঙ্গে থাকব, এমন কিছুই তোমার জন্য অপেক্ষা করবে।’

এই সময় জাভেদ আখতার তাঁকে আত্মহত্যায় প্ররোচণা দেন বলে অভিযোগ এনেছিলেন কঙ্গনা রানাউত।

বর্ষীয়ান অভিনেত্রী শাবানা আজমিকে দেশদ্রোহী বলেন কঙ্গনা। পুলওয়ামা হামলার পর পাকিস্তানে একটি অনুষ্ঠানে শাবানার যোগ দেওয়া নিয়ে এমন মন্তব্য আসে তিন বার জাতীয় পুরস্কারজয়ীর তরফে।

আবার ২০১৭ সালে ‘সিমরান’ ছবি মু্ক্তর সময় চিত্রনাট্যকার অপূর্ব আসরানি তাঁর বিরুদ্ধে রাইটিং ক্রেডিট চুরির অভিযোগ করেন। কঙ্গনা যদিও বলেছিলেন, হনসল মেটার সঙ্গে তিনি স্ক্র্যাচ থেকে ছবির গল্প তৈরি করেন।

অন্য দিকে. রানি লক্ষ্মীবাঈয়ের জীবনভিত্তিক ছবিতে কেতন মেহতার চিত্রনাট্য পড়ে তিনি বলেছিলেন, ‘‘১০ বছরে এত খারাপ স্ক্রিপ্ট কখনও পড়িনি।’’

‘মণিকর্ণিকা’ মুক্তি পাওয়ার সময় বিতর্ক তৈরিতে পরিচালক থেকে শুরু করে অভিনেতা কাউকে ছাড়েননি। পরিচালকের কৃতিত্বে ৭০ শতাংশের দাবি করেন কঙ্গনা। বলিউডের তরফ থেকে তেমন সমর্থন না পাওয়ায় তিনি আলিয়া ভট্টকে মেরুদণ্ডহীন বলতেও পিছপা হননি। কঙ্গনার খারাপ ব্যবহারে সিনেমা থেকে সরে যান সোনু সুদ।

করণি সেনার হুমকির মুখে যখন পড়েছিল ছবিটি। তখন কঙ্গনা বলেন, চার জন ইতিহাসবিদ এই ছবিতে সম্মতি দিয়েছেন। তিনি নিজেও রাজপুত বংশোদ্ভূত. তিনি চাইলেই করণি সেনাদের ধ্বংস করে দিতে পারেন— এমন মন্তব্যও করেন।

সম্প্রতি তাপসী পান্নু এবং স্বরা ভাস্করকেও বি গ্রেড অভিনেত্রী বলে উল্লেখ করেন কঙ্গনা। অনুরাগ কাশ্যপকে মিনি মহেশ ভট্ট বলে আক্রমণ করেছেন তিনি। কাশ্যপের সঙ্গে কালকির বিবাহবিচ্ছেদ নিয়েও টুইট যুদ্ধ শুরু করেন কঙ্গনা।

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর পরও বলিউডে স্বজনপোষণ নিয়ে তোপ দেগেছেন কঙ্গনা। ‘দিল বেচারা’ অভিনেত্রী সঞ্জনা সঙ্ঘি থেকে রিয়া চক্রবর্তী প্রত্যেককে আক্রমণ করেছেন কঙ্গনা। যদিও অভিনেত্রী নাগমা এই বিষয়ে কঙ্গনাকে কথা শোনাতে ছাড়েননি। তিনি বলেন, সুশান্তের মৃত্যুর আগে তাঁকে কোনওদিনই সাহায্য না করা কঙ্গনা কেন আজ হঠাৎ করেই স্বজনপোষণ নিয়ে এতটা সরব?

আজ আবার ‘পৃথিবীর সেরা মুখ্যমন্ত্রী’, ‘মুভি মাফিয়াদের সেরা মুখ্যমন্ত্রী’ বলে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে কটাক্ষ করে টুইট করেছেন কঙ্গনা। সব মিলিয়ে বিতর্কের শিরোনামে একটাই নাম। যদিও অভিনয়ের দক্ষতার জন্য প্রথম ছবি ‘গ্যাংস্টার’ থেকে সাম্প্রতিককালে মুক্তিপ্রাপ্ত পাঙ্গা, সবেতেই দর্শকের প্রশংসা কুড়িয়েছেন ‘কুইন’। : আনন্দবাজার

সিলেটের চাকরির খবর / তানজিনা বেগম

হারানো বিজ্ঞপ্তি, নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আইনগত বিজ্ঞপ্তি, নিলাম বিজ্ঞপ্তি, এফিডেভিট, শুভেচ্ছা অভিনন্দন সহ আপনার প্রতিষ্ঠানের যেকোন বিজ্ঞাপনেরজন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন, প্রচারে প্রসার প্রচারের জন্য আমরা ।
যোগাযোগের ঠিকানা
সৈয়দ সাইফুল ইসলাম নাহেদ
মোবাইলঃ ০১৭১২-০৪৫৩৯১

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন