শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১:৩৪ পূর্বাহ্ন

মাদক সেবনে বাধা, বৃদ্ধাকে ধর্ষণের পর হত্যা

ডেস্ক রিপোর্ট / ৫৭ মোট শেয়ার
হালনাগাদ : রবিবার, ২১ এপ্রিল, ২০২৪
মাদক সেবনে বাধা, বৃদ্ধাকে ধর্ষণের পর হত্যা

মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় ষাটোর্ধ্ব বৃদ্ধাকে ধর্ষণের পর হত্যা করে ঘরের মেঝেতে মরদেহ পুঁতে রাখার ঘটনা ঘটেছে। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার চরামদ্দি ইউনিয়নের মধ্য কাটাদিয়া গ্রামে এ নির্মম ঘটনা ঘটে।

রোববার (২১ এপ্রিল) বরিশাল জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

এতে বরিশালের পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, চরামদ্দি ইউনিয়নের মধ্য কাটাদিয়া গ্রামে মৃত জয়নাল গাজীর স্ত্রী রিজিয়া বেগম (৬০) একাই বসবাস করতেন। প্রায় সাত মাস আগে নিখোঁজ হন রিজিয়া বেগম। গত ১৩ এপ্রিল রিজিয়া বেগমের ছেলে রাসেল বাড়িতে এলে ঘরের ভেতরে মাটির স্তূপ দেখতে পান। বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করলে তারা আদালতের নির্দেশে ঘরের ভেতর থেকে রিজিয়া বেগমের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠান।

পুলিশ সুপার বলেন, এ ঘটনায় বাদী হয়ে ওই দিন মামলা করেন নিহতের ভাই হাওলাদার মাসুদ। মামলার সূত্র ধরে তদন্তে নামে বরিশাল জেলা পুলিশ। প্রযুক্তির ব্যবহার করে এ ঘটনায় জড়িত দুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন একই ইউনিয়নের মধ্য কাটাদিয়া গ্রামের মৃত আইউব আলীর ছেলে মো. ফয়সাল (৩৫) ও মৃত কালাম হাওলাদার কালুর ছেলে লালচাঁন (৩২)।

পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলাম আরও বলেন, ফয়সাল ও লালচাঁন প্রতিনিয়ত ওই বৃদ্ধার ঘরে ও আশপাশে মাদক সেবন করতো। সেই ঘটনায় বাধা দেওয়ায় ঘটনার দিন অর্থাৎ প্রায় সাত মাস আগে পরিকল্পিতভাবে ধর্ষণের পর গলায় কাপড় পেঁচিয়ে হত্যা করে ফয়সাল ও লালচাঁন। এরপর বৃদ্ধার ঘরেই মাটি খুঁড়ে তাকে চাপা দেয় তারা। ফয়সাল ও লালচাঁন দুজনই মাদকসেবী।

গ্রেপ্তারকৃত দুজনকে রোববার আদালতে সোপর্দ করা হয় বলেও জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।


এই বিভাগের আরো খবর

আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর মনিটরিং করার জন্য এটা ব্যবহার করতে পারেন, এটি গুগল এনালাইটিক এর মত কাজ করে।