শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১:৫৪ পূর্বাহ্ন

প্রচণ্ড গরমে গলে যেতে শুরু করেছে রাস্তার পিচ

ডেস্ক রিপোর্ট / ১১৩ মোট শেয়ার
হালনাগাদ : বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২৪
প্রচণ্ড গরমে গলে যেতে শুরু করেছে রাস্তার পিচ

প্রচণ্ড গরমে গলে যেতে শুরু করেছে রাস্তার পিচ

দক্ষিণ ঢাকার সবচেয়ে উষ্ণতম স্থান গুলিস্তান আর উত্তরে মহাখালী। এখানকার তাপমাত্রা উঠছে ৪০ থেকে ৪১ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত। এ ছাড়া হিট পকেটে পরিণত হয়েছে ধানমন্ডি, বনানী, বারিধারা, গুলশান, মতিঝিল-এই চার এলাকা। প্রচণ্ড দাবদাহ ও প্রখর রোদে গলে যাচ্ছে রাস্তার পিচ। এতে যান চলাচল ব্যাহত হওয়ার পাশাপাশি বাড়ছে দুর্ঘটনার ঝুঁকি।

রাজধানীসহ সারা দেশে তাপপ্রবাহে নাকাল জনজীবন। প্রচণ্ড গরমে গলে যেতে শুরু করেছে রাস্তার পিচ। কোথাও কোথাও গাড়ির চাকা ও পথচারীদের জুতার সঙ্গে উঠে আসছে পিচের আস্তরণ। রাজধানীর হিট পকেটগুলোতে ধারণক্ষমতার দ্বিগুণ আবাসিকের ব্যবহার করা এসি, যানবাহন, চুলা তাপমাত্রা বৃদ্ধির একটি বড় কারণ।

বুধবার দুপুর ১২টা। মাপা হচ্ছিল রাজধানীর বেইলি রোডে তাপমাত্রা। গনগনে রোদে মাল্টি মিটারে দেখা গেল পারদ উঠছে ৪০ থেকে ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত। অথচ সাত বছর আগে এপ্রিলে এখানে তা ছিল ৩৫ ডিগ্রি। আবার ২০১৭-তে যে রমনা পার্কে উষ্ণতা ছিল ৩২ ডিগ্রি, এখন তা পৌঁছেছে ৩৯ ডিগ্রিতে। আর মহাখালীতে গড় তাপমাত্রা বেড়েছে সাড়ে ৭ ডিগ্রি।

গবেষণা বলছে, মতিঝিল, গুলিস্তান, ধানমন্ডি, মহাখালী, ফার্মগেট, তেজগাঁও, মিরপুর ১০, হাতিরঝিলসহ ১৬ স্থানে তাপমাত্রা অনুভূত হয় বেশি। এসব এলাকায় সাত বছরে গড় তাপমাত্রা বেড়েছে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।প্রায় সাড়ে তিন শ কিলোমিটার আয়তনের ঢাকায় থাকছেন ধারণক্ষমতার দ্বিগুণ মানুষ। রান্নার জন্য জ্বলছে ৫০ লাখ ইউনিট চুলা। যেখানে ১৫ লাখ এসি ইউনিট ব্যবহার করা যাবে সেখানে এসি চলছে ৬০ লাখ। দুই কোটি নগরবাসীর চলাচলে সড়কে ১৬ লাখের বেশি গাড়ি। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে কাচের ভবন।

রাজধানীর গুলশান, বনানী, উত্তরা, তেজগাঁও ও মতিঝিলে শত শত কাচের ভবন এখন তো তাপমাত্রা বাড়াচ্ছেই। সামনে আরও সংকটের ঝুঁকি তৈরি করছে।এদিকে গত ১০ দিন ধরে যশোর, রাজশাহী, গাজীপুর, খুলনা, চুয়াডাঙ্গা ও পাবনার তাপমাত্রা থাকছে ৩৮ থেকে ৪২ ডিগ্রির ঘরে। এর প্রভাবে বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়কের পিচ গলে যাচ্ছে। এতে রাস্তায় মাঝেমধ্যেই আটকে যাচ্ছে গাড়ির চাকা। বাড়ছে দুর্ঘটনার ঝুঁকি।

গাড়িচালকেরা বলছেন, প্রচণ্ড গরমে রাস্তা উত্তপ্ত হয়ে থাকে। সূর্যের তাপে পিচ গলে পিচ্ছিল হয়ে পড়েছে। এ কারণে গাড়িতে অনেক সময় ব্রেক দিলে তা কাজ করে না। বাড়ে দুর্ঘটনার ঝুঁকি। এ ছাড়া রাস্তার পিচ গাড়ির চাকা অনেক সময় টেনে ধরে। এতে চাকা বিস্ফোরণের ঝুঁকিও বেড়েছে।


এই বিভাগের আরো খবর

আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর মনিটরিং করার জন্য এটা ব্যবহার করতে পারেন, এটি গুগল এনালাইটিক এর মত কাজ করে।